Notice :
Welcome To Our Website...
২০২৪ সালের নির্বাচনেও লড়বেন ট্রাম্প

২০২৪ সালের নির্বাচনেও লড়বেন ট্রাম্প

২০২৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো লড়ার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আবারও প্রেসিডেন্ট হয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে এগিয়ে নেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি। একই সঙ্গে জানিয়েছেন নতুন কোনো দল গঠনের পরিকল্পনা তার নেই।  বরং রিপাবলিকান পার্টিকেই আরও সুসংহত করবেন।

স্থানীয় সময় রোববার ফ্লোরিডার কনজারভেটিভ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।
আলজাজিরার প্রতিবেদন বলছে, গত মাসে হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর এটাই ট্রাম্পের প্রথম বক্তৃতা। সেখানে জো বাইডেনের কড়া সমালোচনাও করেন।

রিপাবলিকানদের এই অনুষ্ঠানে বক্তৃতায় ট্রাম্প বলেন, নতুন দল গঠনের কোনো পরিকল্পনা তার নেই। ট্রাম্প হেরে যাওয়ার পরে অনেকেই বলছিলেন, এরপর নতুন দল তৈরি করে ফের প্রেসিডেন্ট পদের জন্য লড়াই শুরু করবেন সাবেক প্রেসিডেন্ট। কিন্তু ট্রাম্প সেই গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়ে  বলেন, নতুন দলের প্রয়োজন নেই। কারণ, তার দল আছে।  তিনি রিপাবলিকান পার্টির হয়েই লড়াইয়ে নামবেন।  নতুন দল গঠন করলে রিপাবলিকানদের ভোট ভাগ হয়ে যাবে।  রিপাবলিকান পার্টিকে অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে সুসংহত ও শক্তিশালী করতে চান বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
‘আমি নতুন করে কোনো দল গঠন করব না। এটি মিথ্যা খবর। আমরা আরও বেশি ঐক্যবদ্ধ হব, যা অতীতে কখনই ছিল না।’

যুক্তরাষ্ট্রকে আরও সামনে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে সাবেক প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা যুক্তরাষ্ট্রকে রক্ষা করব, যুক্তরাষ্ট্রকে শক্তিশালী করব। আমরা উগ্রবাদ, সমাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে লড়ব।  এগুলো কনিউনিজমের পথে ধাবিত করে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, এদিন উত্তরসূরির কড়া সমালোচনা করেন ট্রাম্প। বলেন, তারা ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নীতি থেকে সরে ‘আমেরিকা লাস্ট’ হয়ে গেছে।

অভিশংসন বিচার থেকে খালাস পাওয়ার সপ্তাহখানেক পর ট্রাম্প এ বক্তৃতা দিলেন।
তিনি অরল্যান্ডোর কনজারভেটিভ পলিটিক্যাল অ্যাকশন কনফারেন্সে (সিপিএসি) রিপাবলিকান পার্টির ওপর ক্রমাগত নিজের প্রভাব জাহির করেন।
বৃহস্পতিবার শুরু হওয়া এ সম্মেলনের মেজাজ আগা-গোড়ায় ট্রাম্পপন্থি। বক্তাদের মধ্যে ট্রাম্পের অনুগত টেক্সাসের সিনেটর টেড ক্রুজ ও ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়রও ছিলেন।

সম্মেলনে ট্রাম্প বারবার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার দিকে জোর দেন। তিনি জানান, এখানে আন্দোলন, দল ও দেশের ভবিষ্যৎ নিয়ে কথা বলার জন্য একত্রিত হয়েছেন।

এদিন আবারও নভেম্বরের নির্বাচনে জেতার দাবি করেন তিনি। বলেন, নভেম্বরের নির্বাচন চুরি হয়ে গেছে।  আগামী নির্বাচনে লড়ার ইঙ্গিত দেন তিনি।

‘আমরা হোয়াইট হাউস ছেড়ে দিয়েছি। কিন্তু কে জানে, কে জানে, আমি তৃতীয় মেয়াদে নির্বাচন করতে পারি।
জো বাইডেনের প্রশাসনের বয়স মাত্র দেড় মাস। এদিন ট্রাম্প বাইডেন প্রশাসনকে ব্যর্থ বলে মন্তব্য করেন। একই সঙ্গে জানিয়েছেন, তার আমলে কত গুরুত্বপূর্ণ কাজ হয়েছে।

ডেমোক্র্যাটদের পাশাপাশি রিপাবলিকানদের একাংশেরও সমালোচনা করেন তিনি। একটি তালিকা সঙ্গে নিয়ে এসেছিলেন তিনি। সেখানে তার বিরুদ্ধে মুখ খোলা রিপাবলিকানদের নাম ছিল। ইমপিচমেন্ট প্রস্তাবে যে রিপাবলিকানরা সমর্থন জানিয়েছিলেন, তাদেরও নাম ছিল। তালিকা পড়ে তিনি বলেন, এই নেতাদের দল থেকে সরিয়ে দেওয়া উচিত।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 doorbin24.Com