Notice :
Welcome To Our Website...
ফার্স্ট টাইম মেশিন চালানো সেই কিশোর আটক

ফার্স্ট টাইম মেশিন চালানো সেই কিশোর আটক

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের স্টোরিতে রিভলবার দিয়ে গুলি চালানোর ভিডিও শেয়ার করা এবং ভিডিওর ক্যাপশনে ‘ফার্স্ট টাইম মেশিন চালাইলাম’ লেখা সেই কিশোর ফারহান আহম্মেদ রাহুল ওরফে তানভীরকে (১৭) আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৩টায় তানভীরকে ফতুল্লার দাপা বেপারিপাড়ার নিকটাত্মীয়ের বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয় বলে পুলিশ জানায়। আটককৃত তানভীর ফতুল্লা থানার দাপা কবরস্থান রোডের মৃত কুদ্দুস হাজীর ভাড়াটিয়া ও ফতুল্লা পোস্ট অফিস বাসস্ট্যান্ড মাজার সংলগ্ন চায়ের দোকানদার নজরুলের পুত্র।

আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, রাতেই তাকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তানভীর জানিয়েছে, সে ইউটিউব থেকে পিস্তল চালানো ভিডিও ডাউনলোড করে তা ফেসবুকে পোস্ট করেছে। ওই ভিডিওতে শুধু হাত দেখা যায় তাই তানভীরের কথার সঙ্গে পিস্তল চালানোর ভিডিওর গরমিল রয়েছে। তারপরও যেহেতু তার ফেসবুক আইডি থেকে ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে সেহেতু তার সাজা ভোগ করতে হবে। এ বিষয়ে আরও তদন্ত চলছে তার বিরুদ্ধে মামলা হবে।

উল্লেখ্য, সোমবার ভিডিওটি আপলোডের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ব্যাপক ভাইরাল হয়। ভিডিওটিতে দেখা যায় অত্যাধুনিক পিস্তলে ম্যাগাজিন প্রবেশ করে অস্ত্রটি লোড করেন। এর পরপরই দুটি ফাঁকা গুলি ছোড়া হয়।

ফেসবুক প্রোফাইলে তানভীরের ছবি থাকলেও স্টোরিতে শেয়ার করা ভিডিওতে শুধুমাত্র গুলি করার দৃশ্যটি দেখা যায়। ভিডিও ওপর লেখা ছিল ‘ফার্স্ট টাইম মেশিন চালাইলাম’। ভিডিওটি আপলোড করা হয়েছে ২২ মার্চ ভোর ৫টা থেকে ৬টার মধ্যে।

ভিডিও দেখা যায়, যিনি গুলি ছুড়ছিলেন তার পাশে দাঁড়িয়ে ভিডিওটি করছিলেন অন্য কেউ। তবে কারো মুখচ্ছবি ভিডিও করা হয়নি। কিন্তু ফেসবুক প্রোফাইলের ছবিতে পরিহিত বেগুনি রঙের পাঞ্জাবির সাথে গুলি করার সময় ব্যবহৃত হাতের বেগুনি রংয়ের পাঞ্জাবির হাতার মিল রয়েছে।

ফেসবুক বায়োতে দেখা যায়, তিনি ফতুল্লা পাইলট স্কুলের সাবেক ছাত্র ও বর্তমানে শহরের নারায়ণগঞ্জ কলেজে অধ্যয়নরত। তবে এটি তার প্রকৃত নাম-পরিচয় কিনা তা জানতে পুলিশ মাঠে নামলে রাতেই তারা নিশ্চিত হয় ভিডিও আপলোড করা সেই কিশোরের প্রকৃত পরিচয়।

ফেসবুক আইডিতে তার নাম ফারহান আহম্মেদ রাহুল লেখা থাকলেও স্থানীয় মহলসহ তার স্বজনদের কাছে তিনি তানভীর নামে পরিচিত। পুলিশ প্রকৃত পরিচয়ের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে তাকে গ্রেফতার করেতে মাঠে নামলে স্থানীয় সোর্স ও তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে অবস্থান নিশ্চিত হয়ে দাপা ইদ্রাকপুরের বেপারিপাড়ার তার নানির বাড়ির সূত্রে এক আত্মীয়ের বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 doorbin24.Com