Notice :
Welcome To Our Website...
আজ জাতীয় কন্যাশিশু দিবস

আজ জাতীয় কন্যাশিশু দিবস

কোথাও ভালো নেই দেশের কন্যাশিশুরা। ঘরে-বাইরে, শহর-গ্রাম, চরাঞ্চল-উপকূল কোথাও নিরাপদ নয় কন্যাশিশু। বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ১৫ শতাংশ কন্যাশিশু। আর বাংলাদেশে মোট জনসংখ্যার ১০ শতাংশ কন্যাশিশু হলেও, তাদের নিরাপত্তায় উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা। দেশে নারী ও শিশু অধিকার সুরক্ষায় বেশ কিছু ইতিবাচক পদক্ষেপ ও অগ্রগতি লাভ করেছে। তার পরও কন্যাশিশুর নিরাপত্তাহীনতার বিষয়টি এখন বড় চ্যালেঞ্জ।

প্রতিনিয়তই কন্যাশিশুরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। ধর্ষণ, গণধর্ষণ, হত্যা, উত্ত্যক্ত করাসহ নানা ধরনের নির্যাতন আর নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে কন্যাশিশুরা। উচ্চবিত্ত পরিবার থেকে নিম্নবিত্ত কোথাও নিরাপদে নেই কন্যাশিশুরা। সারা জীবন তারা নিরাপত্তাহীনতার ভেতর দিয়ে বড় হতে থাকে।

‘আমরা সবাই সোচ্চার, বিশ্ব হবে সমতার’—প্রতিপাদ্য নিয়ে মঙ্গলবার সারা দেশে পালিত হবে জাতীয় কন্যাশিশু দিবস-২০২০। ২০০০ সাল থেকে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় সরকারি আদেশের মাধ্যমে শিশু অধিকার সপ্তাহের তৃতীয় দিনকে ‘কন্যাশিশু দিবস’ হিসেবে পালনের ঘোষণা দিয়েছে। তখন থেকেই প্রতি বছর যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালিত হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, খাওয়াদাওয়া, পোশাকপরিচ্ছেদ এমনকি সামাজিক মর্যাদায় শিশুরা অবহেলা ও বঞ্চনার শিকার। শিশু সুরক্ষার জন্য শিশু নীতিমালা, শিশু অধিকার আইন থাকলেও তা চরাঞ্চল কিংবা প্রত্যন্ত অঞ্চলের কন্যাশিশুদের ক্ষেত্রে ভিন্ন। তবে কন্যাশিশুর সমতা ও নিরাপত্তার বিষয়টি পরিবার থেকেই নিশ্চিত করতে হবে। জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের সম্পাদক নাছিমা আক্তার জলি বলেন, উচ্চবিত্ত পরিবারই হোক বা নিম্নবিত্ত—কোথাও কন্যাশিশুরা নিরাপদ নয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© All rights reserved © 2017 doorbin24.Com